Breaking News
Home / জাতীয় / দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে অক্ষয় পেলেন গণিতের নোবেল, স্পেসিফিক ফীল্ডস মেডেল

দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে অক্ষয় পেলেন গণিতের নোবেল, স্পেসিফিক ফীল্ডস মেডেল

সবার খবর, ওয়েব ডেস্ক: বিশিষ্ট ভারতীয়-অস্ট্রেলিয়ান গণিতজ্ঞ অক্ষয় ভেঙ্কটেশ সহ চারজন পেলেনে গণিতে ‘স্পেসিফিক ফীল্ডস মেডেল’। গণিতের ক্ষেত্রে এই পুরুস্কারটিকে নোবেল প্রাইজের সমতুল্য ধরা হয়, তাই একে বলা হয় গণিতের নোবেল । চার বছর অন্তর এই ফীল্ডস্‌ মেডেল দেওয়া হয় যাদের বয়স ৪০ বছরের নিচে তাদেরকে। ভেঙ্কটেশের বয়স মাত্র ৩৬ বছর। তিনি দিল্লির বাসিন্দা। ভেঙ্কটেশ স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে অধ্যাপনা করেন।
গণিতের নোবেল
গত বুধবার রিওডি জেনেরিওতে বসেছিল গণিতজ্ঞদের আন্তর্জাতিক কংগ্রেস সম্মেলন। সেখানে গণিতে বিশেষ অবদানের জন্য তার নাম প্রস্তাব করা হয়। সেখানেই গণিতের নোবেল বা ‘স্পেসিফিক ফীল্ডস মেডেল’ পুরস্কৃত করা হয় অক্ষয়কে।

অপর তিনজন গণিতজ্ঞ হলেন কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইরানী-কুর্দি বংশোদ্ভূত অধ্যাপক কৌচার বিরকার, জার্মানীর বন ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক পিটার স্কুল্জ, ইটিএইচ জুরিকের ইটালিয় বংশদ্ভূত গণিতজ্ঞ এলিসো ফিগেলি।
প্রত্যেক বিজেতাকে ১৫০০০ হাজার কানাডিয়ান ডলার নগদ পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয়, অর্থের সঙ্গে একটি করে সোনার মেডেলও দেওয়া হয়। প্রত্যেকবার দুজন থেকে চারজনকে এই পুরস্কারে সম্মানীত করা হয়। অক্ষয় ভেঙ্কটেশ দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে ‘স্পেসিফিক ফীল্ডস মেডেল’-এ সম্মানিত হলেন এবার। ২০১৪ সালে এই পুরস্কার প্রথম ভারতীয় হিসেবে পান মঞ্জুল ভার্গব।
তাই স্পষ্ট বলাই যায়, পর পর এই পুরস্কার দুবার ভারতে এলো।
নোবেল পুরস্কার
অক্ষয় ভেঙ্কটেশের সম্পর্কে কিছু আশ্চর্য কথা জানা গেছে। যা আশ্চর্য হলেও সত্যি। যখন অক্ষয়ের বয়স দু-বছর তখন তাঁর পরিবার চলে যায় অস্ট্রেলিয়ার পার্থে। সেখানেই শুরু হয় অক্ষয়ের পড়াশুনো। ছোটোবেলা থেকেই অক্ষয় তার মেধার পরিচয় দিতে থাকেন নানান রকম ভাবে। অল্প বয়সেই ম্যাথ ও ফিজিক্সের প্রতি ওর ভালোবাসা পরিবার ও শিক্ষকদের নজর এড়ায়নি। স্কুলে পড়াকালীনই ছোট্ট অক্ষয় ফিজিক্স ও ম্যাথের ওপর বেশ কিছু প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠান থেকে পুরস্কার জিতে সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এখানেই গল্প শেষ নয়, এই কৃতি মানুষটি মাত্র তেরো বছর বয়সেই স্কুল জীবনের পড়াশুনা শেষ করেন। অবাক হবেন না, ২০০২ সালে যখন তাঁর বয়স ২০ বছর অক্ষয় ভেঙ্কটেশ পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন। সবই যেন স্বপ্নের মতো। এই ‘স্পেসিফিক ফীল্ডস মেডেল’ জেতার পর কি তার সাফল্যের বৃত্ত সম্পূর্ণ হলো? না এখনও কিছু বাকি রয়ে গেল! তা বলবে ভবিষ্যতই।
Read More: এই লক্ষণগুলি দেখলে বুঝবেন মানুষটি সারা জীবন মূর্খই থাকবে

Check Also

হাজারও লোক তামাশা দেখছিলেন কিন্তু এক যুবক এসে বাঁচালেন নদীতে ডুবন্ত এক তরুণীকে

সবার খবর, ওয়েব ডেস্ক: আপনারা যদি ভাবেন পৃথিবী থেকে মানুষের মনুষত্ব্য বোধ হারিয়ে গেছে। তাহলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *