Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / ডুবন্ত শহর: নতুন রাজধানী করার পরিকল্পনা ইন্দোনেশিয়ার। সমুদ্রে মিশে যাচ্ছে জাকার্তা

ডুবন্ত শহর: নতুন রাজধানী করার পরিকল্পনা ইন্দোনেশিয়ার। সমুদ্রে মিশে যাচ্ছে জাকার্তা

সবার খবর, ওয়েব ডেস্ক: ইন্দোনেশিয়ার রাজধানীর নাম কি? উত্তরঃ ‘জাকার্তা‘। এত দিন যাবৎ ঠিক এমনটাই জেনে এসেছি কিন্তু খুব শিঘ্রই ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী পরিবর্তীত হতে চলেছে। অর্থাৎ ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তা অন্য জায়গায় স্থানান্তরিত করা হচ্ছে। ইন্দোনেশিয়ার পরিকল্পনা মন্ত্রী এই ঘোষণাটি করেছেন। বামবাং ব্রডজেনেগোরো বলেন, রাষ্ট্রপতি জোকো উইডোডোও এক গুরুত্বপূর্ণ আলোচনার মাধ্যমে রাজধানীকে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নিয়ে যাওয়ার বিষয়ে সহমত পোষণ করেছেন।

নতুন রাজধানী কোথায় হবে সেই বিষয়ে যদিও এখনও কোনো তথ্য দেওয়া হয়নি। তবে, স্থানীয় গণমাধ্যমের মতে, ‘পালাংকারায়া’ নামটি প্রথমের সারিতে আছে। পালাংকারায়া বোর্ণিয়া দ্বীপে অবস্থিত এবং সেন্ট্রাল কালিমেন্টনের উত্তর-পূর্ব দিকে কয়েক’শ কিলোমিটার দূরে এই শহরটি।

কি কারণে ইন্দোনেশিয়া রাজধানী পরিবর্তন করছে?

ইন্দোনেশিয়ার বর্তমান রাজধানী জাকার্তাতে প্রায় এক কোটি মানুষ বসবাস করে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের জনবহুল শহরগুলির মতো এখানকার মানুষও প্রতিনিয়ত কাজে ব্যস্ত থাকেন। ১৯৪৫ সালে দেশটি ডাচদের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভের পর রাজধানী সরানোর ব্যাপারে বেশ কয়েকবার চিন্তা ভাবনা করা হয়েছে। ২০১৬ সালের একটি সার্ভেতে দেখা যায় এই চকচকে শহরটির রাস্তা জ্যামে পরিপূর্ণ। তাই মন্ত্রী, আমলাদের কোনো গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক থাকলে পুলিশের সাহায্য ছাড়া তারা সঠিক সময়ে উপস্থিত হতে পারেন না। সেই কারণে ইন্দোনেশিয়ার মুদ্রায় বছরে ১০০ ট্রিলিয়ান ক্ষতির সম্মুখিন হয় দেশটি।
জাকার্তা
ইন্দোনেশিয়ার বর্তমান রাজধানী জাকার্তা পৃথিবীর দ্রুত ডুবন্ত শহরগুলির মধ্যে একটি। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, জাকার্তার বড়ো একটি অংশ ২০৫০ সালের মধ্যে জলের তলায় চলে যেতে পারে। যেহেতু এই শহরে এক কোটি মানুষ বাস করেন অতএব এখানকার জলের চাহিদা মেটানোর জন্য ভূগর্ভস্থ জলের ওপরেই নির্ভর করতে হয়। অত্যধিক পরিমানে জল ব্যবহারের ফলে স্থলভাগ ও সমুদ্র পৃষ্ঠের দূরত্ব দ্রুত হারে কমছে। তাছাড়াও প্রতিনিয়ত নতুন নতুন আবাসন গড়ে উঠছে এই শহরকে কেন্দ্র করে। উত্তর জাকার্তার স্থলভাগের উচ্চতা ১০ বছরে প্রায় ২.৫ মিটার কমে গেছে। বছরে গড়ে প্রায় ১-১৫ সেন্টিমিটার জাকার্তার দূরত্ব কমছে সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে। জাকার্তার কিছু স্থানের উচ্চতা সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকেও কম। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এই শহর অদূর ভবিষ্যতে জলের তলায় চলে যেতে পারে। কারণ এখানকার ৬০% মানুষ ভূগর্ভস্থ জল ব্যবহার করে থাকেন।

আরও পড়ুন: Sonagachi : এশিয়ার বৃহত্তম রেড এলার্ট জোন | সোনাগাছির অজানা কথা

Check Also

কাতার রোজ মিউজিয়াম

কাতারের মরুভূমিতে তৈরি হলো গোলাপ আকৃতির চোখ ধাঁধানো যাদুঘর

সবার খবর, ওয়েব ডেস্ক: মরুভূমিতে গোলাপ ফোটানো যায় তা কাতারকে দেখে শিখতে হবে সকলকে। ঠিক …