এয়ারটেলের বিতর্কিত মন্তব্য : গ্রাহক বললেন মুসলিম এক্সিকিউটিভের কাজে বিশ্বাস নেই

সবার খবর, ওয়েব ডেস্ক: সম্প্রতি, ওলা গ্রাহক টুইটারে একজন মুসলমান ড্রাইভারের ক্যাবকে বাতিল করার কথা বলেছিলেন। কিন্তু ওলা কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে ওই গ্রাহক কে মানব জাত সম্বন্ধে তাদের অবস্থান স্পষ্ট করে দিয়েছিলেন। ওলার এই উত্তরে স্বভাবতই সকল মানুষ খুশি হয়েছিলেন। কিন্তু এয়ারটেল বিতর্কিত কান্ড করে বসলেন এক গ্রাহকের ফাঁদে পা দিয়ে।

এয়ারটেলের DTH গ্রাহক পূজা গত সোমবার একটি টুইট করে অভিযোগ করেছিলেন। এই অভিযোগের প্রতিক্রিয়াতে, এয়ারটেল ইন্ডিয়া টুইট করেছিলেন এবং কোম্পানির একজন কর্মকর্তা গ্রাহক পূজার অভিযোগটি সমাধান করার আশ্বাস দিয়েছিলেন। যিনি এই টুইটের রিপ্লাই দিয়েছিলেন তিনি ছিলেন একজন মুসলিম এক্সিকিউটিভ। তার নাম ছিল শোয়াইব। পুজা পরে আরেকটি টুইট করেন এবং শোয়াইবের ধর্মের কারণে তার যায়গায় অন্য এক্সিকিউটিভ সাথে কথা বলবেন বলে অবেদন করেন এয়ারটেল কর্তৃপক্ষের কাছে।
এই পর্যন্ত সব ঠিক ছিল কিন্তু যখন এয়ারটেল কর্তৃপক্ষ তার এই ধার্মিক উন্মাদপূর্ণ টুইটের জবাব না দিয়ে নতুন হিন্দু এক্সিকিউটিভ প্রদান করলো তখন সমালোচনার ঝড় উঠেছিল শোস্যাল মিডিয়াতে। এরপর এয়ার বলে, আমরা আমদের কর্মচারির সাথে ধর্ম নিয়ে বিভেদ করি না। সবার কাছে এয়ারটেল কর্তৃপক্ষ এই ঘটনাটিকে সাম্প্রদায়িক রঙ না দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। অবাক করার মতো ব্যাপার যে পুজার টুইটার একাউন্টে ১৬০০০ ফলোয়ার আছে।
পুজার সাম্প্রদায়িক চিন্তা ভাবনা তার টুইট দেখেই বোঝা যায়। পুজা দ্বিতীয়বার টুইট করার সময় লিখেন ‘তুমি যেহেতু মুসলিম সেহেতু তোমার কাজের ধরন নিয়ে আমি সন্দিহান। হয়তো কোরানে কাস্টমার সার্ভিসের জন্য আলাদা কোনো থিওরি থাকতে পারে। তাই আমার সমস্যা এক হিন্দু এক্সিকিউটিভ সমাধান করলে ভালো হয়’।
Read More: ক্যান্সারের কাছে ইরফানে খানের আত্মসম্পর্ণ: তার বার্তা পড়ে শোকাচ্ছন্ন গোটা বলিউড, বললেন আমার সময় শেষ

Check Also

কুমিল্লায় ধর্ষণ

শিক্ষকের ধর্ষণে মা ৭ম শ্রেনির ছাত্রী, চাচার ধর্ষণে মা ভাতিজি

কুমিল্লায় ধর্ষণ – শিক্ষক কিংবা নিকট আত্মীয় কারো কাছেই কি নিরাপত্তা নয় নারীরা?কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কোচিং …

Leave a Reply

Your email address will not be published.