Home / আন্তর্জাতিক / করোনাভাইরাস ইন্ডিয়া – দিল্লিতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হবার আশঙ্কা

করোনাভাইরাস ইন্ডিয়া – দিল্লিতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হবার আশঙ্কা

করোনাভাইরাস ইন্ডিয়া – ভারতের রাজধানী দিল্লির অবস্থা এখন এতটাই ভয়াভহ অনেক জায়গায় শুধু চিতার আগুন জ্বলছে । দেশটির আত্মবিশ্বাস যেন শেষের পথে। প্রত্যেকটা পরিবারের পরিজন হারানোর গল্প জাতীয় লজ্জায় পরিনত হয়েছে।

জারাঙ্গভি মালোথা কয়েক দশক ধরে শ্মশানে কাজ করছেন।এখন তিনি অনবরত কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি জানান আমি এরকম ভয়াভহ পরিস্থিতি আগে কখনও দেখিনি। মনেই হয় না যে আমরা ভারতের রাজধানীতে বসবাস করছি। মানুষ অক্সিজেন পাচ্ছে না তারা পশুর মতো মারা যাচ্ছে। আমাদের কাছে তাদের সৎকারের জন্য পর্যাপ্ত জিনিসও নেই।

করোনাভাইরাস ইন্ডিয়া – দিল্লিতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হবার আশঙ্কা

শিভাঙ্গি মেহরা নামক একজন হাসপাতাল কর্মী যেই হাসপাতালে কাজ করেন সেই হাসপাতালের জন্য ফোনে অক্সিজেন যোগাড়ের চেষ্টা করছেন। তিনি বলেন কিছুই হয়নি আমি জানি না সরকার কি ঘুমাচ্ছে ? তার কি করছে আসলে ? যে পরিস্থিতি দেখছি তাতে আমি পুরোপুরি হতাশ। সরকার একদমি ব্যর্থ। দিল্লিতে কোন মানুষ বাস করার মতো অবস্থা নেই।  এমনকি এই শহরে এখন কেউ শান্তিতে মরতেও পারবে না।

করোনার আপডেটঃ ভারতে ভয়াল রূপে করোনা – অক্সিজেনের অভাবে রেকর্ড মৃত্যু

উত্তর দিল্লির একটি ছোট হাসপাতালে প্রতিদিনই রোগী সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে। হাসপাতালের ডাক্তার জানান গত এক সপ্তাহ ধরে আমরা নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছি। একেকসময় আমাদের কাঁদতে মন চায় কারন আমরা রোগীদের জন্য ঠিকভাবে কিছু করতে পারছি না। প্রতিদিন একই চিত্র, আমাদের কাছে মাত্র দু’ঘন্টা অক্সিজেন ব্যবহারের ব্যবস্থা আছে। শুধুমাত্র আমাদের আশ্বস্ত করা হচ্ছে কিন্তু অক্সিজেন নেই।

করোনা আরো খবরঃ করোনার ৩য় ঢেউ – করোনা আবার ভয়ংকররূপে ফিরছে

এখন রোগীর পরিবারের সদস্যদের অক্সিজেন যোগাড় করতে বলা হচ্ছে। একটি মেডিকেল শপে দেখা গেল মানুষ তাদের প্রিয়জনের জন্য খালি সিলিন্ডার নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। ভারতের মানুষের মধ্যে এখন এই চিন্তাই কাজ করছে সরকারের কি করা উচিৎ ছিল, কী করছে সেটা না ভেবে এখন মানুষ নিজেদের জীবন বাঁচাতে এই মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়েই ব্যস্ত।

সূত্রঃ বিবিসি নিউজ বাংলা

Check Also

বিরিয়ানি

বিরিয়ানি খেতে প্রায় দেড় কিলোমিটার লাইন

বিরিয়ানি খেতে প্রায় দেড় কিলোমিটার লাইনঃ লকডাউন শেষ মানেই যেন চলে গেছে করোনার প্রকোপ।একদল বিরিয়ানি …