রান্না ঘরেই আছে গাস বা অ্যাসিডিটি কমানোর ওষুধ। ৯৯% মানুষ জানেন না

সবার খবর, হেল্থ ডেস্ক: গ্যাস বা অ্যাসিডিটির ওষু্‌ধ বিক্রি সর্বাধিক। কারণ বর্তমান সময়ে এমন মানুষ খুব কম আছেন, যাঁরা গ্যাস বা অ্যাসিডিটিতে ভোগেন না। তখনই তাঁরা আশ্রয় নেন অ্যাসিডিটি নিরোধক ওষুধের। চিকিৎসকদের পরামর্শ ছাড়া মুড়িমুড়কির মতো বাজার থেকে এসব ওষুধ যখন তখন কিনে খাওয়া ঠিকও নয়। কিন্তু তাতে কি, নিয়মকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে চলে নিয়মিত অ্যাসিডিটি বা গ্যাস নিরোধক ওষুধ খাওয়া।
লবঙ্গের গুনাগুন
গ্যাস বা অ্যাসিডিটি কেন হয়? চিকিৎসকরা বলছেন, অ্যাসিডিটি বা গ্যাস অনেক কারণে হতে পারে। তবে, খালি পেটে থাকলে, মানষিক চাপ, বেশি মশলাদার খাবার, অপর্যাপ্ত শারীরিক পরিশ্রম অ্যাসিডিটির কারণ হতে পারে। আবার নিয়মিত অ্যালকোহল পান করলেও হতে পারে গ্যাস বা অ্যাসিডিটি। চিকিৎসকদের মত, লাইফ স্টাইল বদলালে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আসবে।
অ্যাসিডিটির লক্ষণ হল: পেট ভার, বুক জ্বালা, মন্দ ক্ষুধা, চোঁয়া ঢেকুর, অজীর্ণতা… প্রভৃতি। এরকম হলে চিকিৎসকদের পরামর্শ মতো ওষুধ খেতে হবে।
তবে আয়ুর্বেদ মতে, লবঙ্গ অ্যাসিডিটি বা গ্যাস কমাতে বিশেষ উপকারী। লবঙ্গ হজমে সাহায্য করে। দারুচিনি ও লবঙ্গ অ্যাসিডিটি কমাতে বড় ভূমিকা রাখে। খুব বেশি অ্যাসিডিটি হলে আয়ুর্বেদ চিকিৎসকরা ৩-৪ টি লবঙ্গ চিবোতে পরামর্শ দিয়ে থাকেন। লবঙ্গ ও দারুচিনি একসঙ্গে চিবোলে আরও ভালো কাজ হয়।
Read More: ব্রা-এর রঙের কারণে কি ব্রেস্ট ক্যান্সার হতে পারে? সত্যিটা জানুন

Check Also

পিঠে ব্যথার সমাধান

খুব সহজেই পিঠে ব্যথার সমাধান পাবেন এই কাজগুলি করলে

সবার খবর হেল্থ ডেস্ক:আমরা কোনো না কোনো সময় পিঠে ব্যথার সমাধান খুঁজেছি। কারণ যেকোনো মানুষের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.