Home / রবিবারের আড্ডা / সাহিত্য চর্চা / বহরমপুর শহরে একুশে কবিতা পত্রিকার আড্ডা

বহরমপুর শহরে একুশে কবিতা পত্রিকার আড্ডা

ঝুমঝুম সাহা, বহরমপুর: সাল ২০১০। একদল তরুণ ভাবলেন অন্যকিছু করবেন। কিন্তু কি অন্যরকম? রাস্তায় দাঁড়িয়ে-ই মত বিনিময় চলল, বন্ধুদের সঙ্গে। ঠিক হয়ে গেল ওঁরা পত্রিকা করবেন। বাংলা পত্রিকা। কবিতা পত্রিকা। কিন্তু পত্রিকা তো অনেক হচ্ছে, এতে আবার নতুনত্ব কী! হুঁম। ওরা নতুন ভাবনার, নতুন চিন্তার ধারক-বাহক। ওঁরা জানতেন, নতুনকে ছুঁতে গেলে পুরনোকে স্পর্শ করতে হয়। নইলে নতুন মাধুর্য হারায় অচিরেই। এভাবে-ই শুরু হয়েছিল, মাসিক একটি পত্রিকা। ক্ষীণকায়। তবু সাহসী। আর কয়টি বাজার চলতি পত্রিকার থেকে আলাদা। একুশে তখন হাতে লিখে, ইলাসট্রেসন করে, জেরক্স করে বেরতো। প্রতিমাসে। প্রতিমাসেই চলে যেত ভারতবর্ষের প্রান্তে প্রান্তে। অনেক সাহিত্যিক কবি লেখক বেশ জমিয়ে আস্কারা দিয়েছন। আবার দূর ছাইও করেছেন অনেকে-ই। তাতে কি, আলোচনা ও সমালোচনা তো সংস্কৃতির-ই অংশ। একুশের তরুণরা তরুণ কবিরা থেমে থাকেননি। কেবল তরুণ কবিদের নিয়ে প্রকাশিত হয়েছে নিরন্তর। কখনো থেমেছে, বন্ধ হয়ে যায়নি। বরং হাতে লেখা পত্রিকাটি মুদ্রিত সংখ্যা হিসেবে বেরিয়েছে।শুধু একুশের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আরও নতুন মুখ। একুশে কবিতা পত্রিকার সম্পাদক ও তরুণ কবি সুব্রত হাজরা বলছিলেন তাঁদের পত্রিকার কথা। আবেগাপ্লুত হয়ে পড়ছিলেন এই তরুণ কবি। বলছিলেন, ‘মফসসল শহর থেকে পত্রিকা চালানো কম কথা নয়। সাম্প্রতিক নবীনরা অনেকেই কবিতা থেকে দূরে। তবু যাঁরা একুশে কবিতার পাশে আছেন, ওদের উদ্যোম ও তারুণ্যের সাহস চোখে পড়ার মত-ই। ওদের টানেই একুশে দীর্ঘজীবী হতে চায়’।
একুশে কবিতা পত্রিকার আড্ডা
‘শুধু কবিতার জন্য ‘ এই পত্রিকার মূলমন্ত্র। আর শুধু কবিতার জন্যে-ই গত১১ মার্চ, ২০১৮ রবিবার মুর্শিদাবাদের বহরমপুর শহরে ওরা একত্রিত হয়েছিলেন, ছোট্ট মাসিক আড্ডায়। ৩৪ তম আড্ডা। একুশে কবিতার কবিদের উন্মাদনা ছিল চোখে পড়ার মতো-ই। এই একুশ শতকে বাংলা কবিতা সম্পর্কে যখন কবিতার বোদ্ধা রা রে-রে করে তেড়ে ওঠেন, বলেন কোথায় তরুণ? কোথায় তরুণ কবিতা? তখন তাঁদের বলতে ইচ্ছে করে, একুশে কবিতা এগিয়ে যাচ্ছে। তাঁদের পাশে দাঁড়ান…
এদিনের আড্ডায় মুর্শিদাবাদ ও পার্শ্ববর্তী জেলা থেকে বহু কবি ও সাহিত্য-সংস্কৃতিপ্রেমী অংশগ্রহণ করেন। কবিতাপাঠ করেন তরুণ কবি এম এ ওহাব, রাজশ্রী পাল, ও সুব্রত পাল। তাঁদের কবিতার ওপর মনোজ্ঞ আলোচনা করেন, কুনালকান্তি দে, বিশ্বজিৎ মন্ডল, মহাদেব নাথ, কৃষ্ণ দাস, সামীরুল মণ্ডল, দিলরুবা খাতুন প্রমুখ। আড্ডা সঞ্চালনা করেন একুশে কবিতা পত্রিকার সম্পাদক, কবি সুব্রত হাজরা।

Check Also

নাটক রিভিউ : এক মঞ্চ, অনেক জীবন লিখেছেন অর্পণ পাল

নাটক রিভিউ এক মঞ্চ, অনেক জীবন অর্পণ পাল নাট্যাচার্য গিরিশ ঘোষের জন্মের একশো পঁচাত্তর বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *