Breaking News
Home / বিবিধ / মিষ্টি বানানোর নিয়ম : বিভিন্ন ধরনের মিষ্টি ঘরে বানিয়ে নববর্ষ বরণ করুণ

মিষ্টি বানানোর নিয়ম : বিভিন্ন ধরনের মিষ্টি ঘরে বানিয়ে নববর্ষ বরণ করুণ

মিষ্টি বানানোর নিয়ম

মিষ্টি বানানোর নিয়ম শিখুন, ঘরে বানিয়ে নববর্ষ বরণ করুণ। মিষ্টি ছাড়া আমরা চলতেই পারিনা।বাঙালির কোনো উৎসবই মিষ্টি ছাড়া অসম্পন্ন।তাই বাংলার উৎসব মানেই মিষ্টিমুখ ।আর এই বাঙালি মিষ্টান্ন নিজ রন্ধনশালায় তৈরি হলে, যেন সোনায় সোহাগা। সেই সাথে পঞ্চমুখ হওয়া তো আছে-ই। তাই দেয়া হলো খুব সহজ উপায়ে কিছু মিষ্টি তৈরির প্রণালী।
লিখেছেন: রন্ধনশিল্পী তানজিন তিপিয়া।
১.রসমলাই
রসমালাই
কি কি লাগবে:
ছানা ২ কাপ, সিরা ও তরল দুধ ২ লিটার।
কিভাবে বানাবেন: উপকরণগুলো একত্রে মাখিয়ে নিন,যাতে দানা না থাকে। ছোট ছোট বল তৈরি করে সিরায় ঢেলে দিন, ঢাকনা দিয়ে, বেশি আঁচে ৫ মিনিট ও মাঝারি আঁচে ১০ মিনিট ফুটান। চুলা বন্ধ করে এভাবে ১ ঘণ্টা রাখুন। তরল দুধ জ্বাল দিয়ে কমিয়ে ঘন করুন। ১ লিটার পরিমাণ হয়ে এলে, সিরাতে ডোবানো বলগুলোতে ঢেলে দিন। তারপর মাত্র ৩ মিনিট ঢাকনা দিয়ে ফুটান। চুলা থেকে নামিয়ে ৬ ঘণ্টা রেখে দিন। রস মলাই পরিবেশনের জন্য তৈরি।
সিরা : ৮ কাপ জলে ৩ কাপ চিনি।একত্রে জ্বাল দিলেই সিরা তৈরি।
[আরও পড়ুন: নির্ভেজাল শসার সুক্তো বানিয়ে ফেলুন আজই]
ছানা তৈরি: ১ লিটার তরল দুধ জ্বাল দিন, ফুটে এলে ২৫০ গ্রাম টক দই দিয়ে নাড়ুন। দুধ ফেটে আসা মাত্র,পাতলা কাপড়ে ঢেলে ৩০ মিঃ রাখুন। চেপে চেপে জল বের করবেন না।
মনে রাখবেন: ১ গ্লাস ঠাণ্ডা জলে একটি বল দিন, যদি ডুবে যায় তাহলে বুঝবেন আপনার বল সঠিক ভাবে রান্না হয়েছে।
২. রসগোল্লা
রসগোল্লা
কি কি লাগবে: ছানা ২ কাপ, চিনি ১ চা চামচ, সুজি ১ চা চামচ।
কিভাবে বানাবেন: উপকরণগুলো একত্রে মাখিয়ে নিন। যাতে দানা না থাকে। ছোট বল তৈরি করে সিরায় ঢেলে দিন, ঢাকনা দিয়ে,বেশি আঁচে ১০ মিনিট ও মাঝারি আঁচে ২০ মিনিট ফুটান। চুলা থেকে নামিয়ে ৭-৮ ঘণ্টা রেখে দিন,রস গোল্লা পরিবেশনের জন্য তৈরি।
মনে রাখবেন: ১ গ্লাস ঠাণ্ডা জলে একটি বল দিন। যদি ডুবে যায় তাহলে বুঝবেন, আপনার গোল্লা সঠিক ভাবে রান্না হয়েছে।
৩. কাঁচাগোল্লা
কাঁচাগোল্লা
কি কি লাগবে: ছানা ২ কাপ, মাওয়া ১ কাপ, চিনি ৪ টেবিল চামচ।
কিভাবে বানাবেন: সব উপকরণ একত্রে মাখিয়ে নিন। হাতে গোল গোল বল তৈরি করে গুড়ো দুধে গড়িয়ে নিন। কাঁচা গোল্লা পরিবেশনের জন্য তৈরি।
মাওয়া: ৫ টেবিল চামচ ঘি’তে ৭ টেবিল চামচ গুড়ো দুধ দিয়ে মেখে আধ ঘণ্টা ফ্রিজে রাখুন। আবার হাত দিয়ে কচলে নিন, আপনার মাওয়া তৈরি।
মনে রাখবেন: ডায়েবেটিস রোগীদের জন্য, সুগার ফ্রি চিনি দিয়েও বানানো যাবে।
৪. সন্দেশ
সন্দেশ
কি কি লাগবে: ছানা ২ কাপ, চিনি ৪ টেবিল চামচ।
কিভাবে বানাবেন: উপকরণ দুটি একত্রে মাখিয়ে নিন। একটি সমতল থালায় প্লাস্টিক ব্যাগ বসিয়ে দিন। মিশ্রণটি হাত দিয়ে চারকোণা আকৃতি করে বসিয়ে ১ ঘণ্টা ফ্রিজে রাখুন। তারপর ধারালো ছুরি দিয়ে কাটুন। সন্দেশ পরিবেশনের জন্য তৈরি।
ছানা তৈরি: ৩ লিটার তরল দুধ জ্বাল দিন ফুটে এলে, ৫ টেবিল চামচ ভিনেগার দিয়ে ৩০ সেকেন্ড নাড়ুন। দুধ ফেটে গেলে। পাতলা কাপড়ে ঢেলে ঠাণ্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ভালো ভাবে ছেঁকে নিন।
মনে রাখবেন: ডায়েবেটিস রোগীদের জন্য,সুগার ফ্রি চিনি দিয়েও বানানো যাবে।
আরও পড়ুন: চিকেন বিরিয়ানির রেসিপি : রবিবাসরীয় মেনুতে বিকল্প কিছুই ভাবা যায় না

Check Also

নেতাজি ও হিটলার

একজন রিয়েল হিরো নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু: যাঁর সামনে হিটলারও মাথা নত করেছিলেন

সবার খবর, নিজেস্ব ডেস্ক: ফ্রান্সে যেমন নেপোলিয়ন বোনাবার্ট, ইতালির মুসোলিনি এবং তুরস্কের মুস্তফা কামালপাশা ঐতিহাসিক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *