Breaking News
Home / খেলার খবর / এক মর্মান্তিক কাহিনী: একমাত্র ক্রিকেটার যাকে ফাঁসির দড়িতে ঝুলতে হয়েছিল!

এক মর্মান্তিক কাহিনী: একমাত্র ক্রিকেটার যাকে ফাঁসির দড়িতে ঝুলতে হয়েছিল!

সবার খবর, স্পোর্টস ডেস্ক: ক্রিকেট মানেই ভদ্রলোকের খেলা। প্রতিভার কারণে অনেক ক্রিকেটারই ইতিহাসের পাতায় নিজের নাম লেখাতে সক্ষম হয়েছেন। কিন্তু আজ যে ক্রিকেটার সম্পর্কে জানব, তিনি তার জীবনের কালো অধ্যায়-এর জন্য বেশি পরিচিত। কারণ তিনি একমাত্র ক্রিকেটার যাকে ফাঁসির দড়িতে ঝুলতে হয়েছিল।

তিনি ওয়েস্ট ইন্ডিজের লেসলি জর্জ হিল্টন। জন্মগ্রহণ করেন ২৯ মার্চ ১৯০৫ সালে। হিল্টন ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের ডানহাতি ফাস্ট বোলার। নিচের দিকে এসে ব্যাটও চালাতে পারতেন ভালো। ১৯৩৫ থেকে ১৯৩৯ সালের মধ্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ছটি টেস্ট ম্যাচ খেলেন হিল্টন। হিল্টন খুব হতদরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। ১৯২৭ সাল থেকেই জ্যামাইকান ক্রিকেটে একজন উজ্জ্বল নক্ষত্র হিসেবে উঠে আসেন তিনি। বহুবার এই ডানহাতি পেসারকে অবহেলা করা হয়। ফলে কোনমতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের জাতীয় দলের হয়ে খেলার সুযোগ পাচ্ছিলেন না হিল্টন। শেষ পর্যন্ত ১৯৩৫ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলার সুযোগটা হয়ে গেল। দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করলেন এই ফাস্ট বোলার। ফলে চার বছর পর আবার দলে ডাক পেলেন। ১৯৩৯ সালে তিন টেস্ট সিরিজের জন্য নির্বাচিত হলেন তিনি। কিন্তু ইংল্যান্ড সিরিজে সকলের প্রত্যাশায় জল ঢেলে দিয়ে হিল্টন খুব খারাপ পারফরম্যান্স করলেন। এই ছিল হিল্টনের ছোট্ট ক্রিকেট কেরিয়ার।
লেসলি হিল্টন
ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার পর খুব একটা ভালো কাটছিল না হিল্টনের জীবন। একটি সরকারি চাকরি পেয়েছিলেন হিল্টন। সেই চাকরি দিয়ে কোনো মতে সংসার সামলাতে পারতেন। তার বাইরে আর কিছুই করতে পারছিলেন না তিনি। ভালোবাসার সংসার ছিল তাদের দুজনের। কিন্তু তিনি একটি অতিমারাত্মক ভুল কাজ করে ফেলেন। তার স্ত্রীকে হত্যা করার জন্য দোষী সাব্যস্ত করা হয় হিল্টনকে।তাকে ফাঁসি দেওয়া হয়। হিল্টনের স্ত্রী লার্লিন রোজকে হিল্টন নিজেই খুন করেন। কারন লার্লিন বিশ্বাস ভঙ্গ করেছিলেন হিল্টনের।

হিল্টন-এর সঙ্গে লার্লিন রোজ-এর পরিচয় ১৯৩৫ সালে ইংল্যান্ডের সঙ্গে টেস্ট ম্যাচ খেলার সময়। লার্লিন ও হিল্টন একে অপরকে সাত বছর ডেট করেন। কোনো মতেই লার্লিনের বাবা বিয়েতে রাজি হচ্ছিলেন না। কারন হিল্টনরা ছিল ব্যাকওয়ার্ড পরিবারের সন্তান। শেষ পর্যন্ত মেয়ের জেদের কাছে হার মানতে হয় লার্লিনের বাবাকে।
১৯৪২ সালে তারা দুজন বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। ঠিক ৫ বছর পর তাদের কোল জুড়ে একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। কিন্তু ঠিক কী কারণে দুজনের সম্পর্ক ১২ বছর পর নষ্ট হয়ে গেল? কেনই বা হিল্টনকে গুলি চালাতে হলো তাঁর স্ত্রীকে?

কেনো ক্রিকেট কলঙ্কিত হলো?

হিল্টনের স্ত্রী লার্লিন রোজের কাপড়ের ব্যবসা ছিল। ব্যবসার কারণেই লার্লিন প্রায়ই নিউইয়র্ক যেতেন। ঠিক এই সময়ই হিল্টনের হাতে লার্লিনের একটি গোপন চিঠি চলে আসে। যে চিঠিটি পড়ার পর তিনি ঠিক কী করবেন ভেবে উঠতে পারছিলেন না। পৃথিবীর সমস্ত মানুষের ওপর থেকে বিশ্বাস যেন চলে যাচ্ছিল হিল্টনের। কারণ যাকে তিনি প্রাণ দিয়ে ভালোবাসলেন, তারই অবৈধ সম্পর্কের বাসা বেধেছে নিউইয়র্কে। চিঠি পড়ার পর তিনি সমস্ত বিষয়টি পরিবারের সামনে পরিস্কার করলেন। সঙ্গে সঙ্গে টেলিগ্রাম করে লার্লিনকে নিউইয়র্ক থেকে ডেকে পাঠান। লার্লিনের-এর হাতে অন্য কোন উপায় ছিল না সমস্ত দোষ শিকার করা ছাড়া। তাদের দুজনের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। হিল্টন বলেন, তুমি যে অন্য ব্যক্তির সঙ্গে বেড শেয়ার করছো!G-এর ভবিষৎ কি হবে ভেবেছো? হিল্টন ও লার্লিন আদর করে তাদের সন্তান গ্যারিকে ‘জি’ বলে ডাকতো। তারপর লার্লিন বলেন, তুমি আমার জীবনকে শেষ করে দিয়েছ। আমার মাতাপিতার কথা শোনাই উচিত ছিল। তোমাকে বিয়ে করে ভুল করেছি। তুমি আমাকে স্পর্শ করবে না। রয়(রয় ফ্রান্সিস লার্লিনের প্রেমিক) তোমার চাইতে ভালো মানুষ।
লেসলি জর্জ হিল্টন
দেরি করেননি হিল্টন। সঙ্গে সঙ্গে তার বন্দুকের পাঁচটি গুলি তার প্রিয়তমা স্ত্রীর শরীর ঝাঁঝরা করে দেয়। এই ঘটনা আদালত শোনার পর, কুড়ি অক্টোবর ১৯৫৪ সালে, লেসলি জর্জ হিল্টনকে দোষী সাব্যস্ত করে ফাঁসির আদেশ দেয়। ১৭ মে ১৯৫৫ সালে তাঁর মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়।
হিল্টন আদালতে বলেন, প্রথমে ভেবেছিলাম আমি নিজেকেই শেষ করে দিই ওই বন্দুক দিয়ে। কিন্তু কিছু বুঝে ওঠার আগেই বন্দুক থেকে গুলি বেরিয়ে যায়।

সত্যি কি হিল্টন লার্লিনকে ভালোবেসে ছিলেন? না অতি ভালোবাসাই কাল হলো তার জীবনে। এই প্রশ্নের উত্তর আজও কেউ দিতে পারেনি। ফাঁসি হয়েছে এই প্রতিভাধর ক্রিকেটারের কিন্তু তিনি আজও হয়তো বেঁচে আছেন জ্যামাইকার কোনো ক্রিকেট মাঠে। লেসলি জর্জ হিল্টনের জীবনটা যেন একটা পূর্ণাঙ্গ নাটক।
আরও পড়ুন: ৩৫ টাকার শ্রমিক থেকে জাতীয় ক্রিকেট দলে খেলা এক নায়কের কাহিনী

Check Also

বিজয় শংকর

চোটের কারনে বিশ্বাকপের বাইরে ভারতীয় অলরাউন্ডার! দলে যোগ দিলেন এক ওপেনার

সবার খবর, স্পোর্টস ডেস্ক: গতকাল থেকে ভারতীয় ক্রিকেট অনুরাগিদের জন্য একের পর এক দুঃসংবাদ। প্রথমে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *