Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / যে সাংসদ ইসলাম ধর্মকে বিষ বলতেন, তিনিই আজ ধর্ম পরিবর্তন করলেন

যে সাংসদ ইসলাম ধর্মকে বিষ বলতেন, তিনিই আজ ধর্ম পরিবর্তন করলেন

সবার খবর, ওয়েব ডেস্ক: ইসলাম একটি বিষ! যে কোনো খারাপ কাজকেই ইসলামের সঙ্গে জুড়ে দিয়ে যে বিতর্ক করতে ভালোবাসতেন। যার কাজই ছিল ইসলামের বিরুদ্ধে বিশোধগার করা। তিনি হচ্ছেন, নেদারল্যান্ডের ডান পন্থী দলের সংসদ সদস্য জোরাম ভ্যান ক্লেভারান(২০১০-২০১৭)। জোরাম ভ্যান ক্লেভারানকে PVV দলের প্রধান গীর্ট উইল্ডার্সের ডান হাত হিসেবেই জানতো সকলে। ক্লেভারান মুসলিম বিশ্বে একটি বিতর্কিত নাম ছিল। তিনি ইসলাম গ্রহন করার পূর্বে বলেছিলেন, ইসলাম নামের বিষ আমাদের দেশকে ১০০ বছরের মধ্যে খেয়ে ফেলবে। তিনি পার্লামেন্টে দাঁড়িয়ে বলেন, আমাদের দেশে যে সব ইসলামিক ইতিহ্য বা প্রতিক আছে তা ভেঙে গুড়িয়ে দিতে হবে।
নেদারল্যান্ড ইসলাম
৪০ বছর বয়সে এসে তিনি ইসলামকে বদনাম করার জন্যে একটি বই লেখার সময় ইসলাম গ্রহণ করেন। তিনি হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর জীবন ও কোরান রিসার্চ করতে গিয়ে দেখতে পান, তিনি যা ভাবতেন ইসলামকে নিয়ে তা সম্পূর্ণ ভুল ছিল। তাই তিনি মনে করেন, কোনো কিছু সম্পূর্ণ না জেনে সে বিষয়ের বিরুদ্ধে বলা উচিত নয়। তাই যেসব মিডিয়া ক্লাভারেনের ইসলামের বিপক্ষে কটূক্তি বড়ো করে ছাপতেন, সেই সব মিডিয়াকে আজ বলতে হচ্ছে ক্লাভারেন মুসলিম ধর্ম গ্রহন করেছে। খবরটি পড়ে নেদারল্যান্ডের মানুষরা আশ্চর্য হয়েছিল। কারণ ক্লাভারেন নিজের মতের উল্টো পথে নিজেই হেটেছিলেন।

ডেইলি মেইলকে ক্লাভারেন বলেন, ঈশ্বরের অনুসন্ধানের সময় আমি সবসময় একটি নির্দিষ্ট দূরত্ব অনুভব করতাম। কিছুতেই যেন ঈশ্বরের কাছে পৌছতে পারছিলাম না। ইসলাম ধর্ম গ্রহনের পর ধর্মীয় ভাবে ঘরে ফেরার মত অনুভূতি হচ্ছে। ইসলাম সম্পর্কে জণগনকে ভুল ধারণা দেওয়ার জন্যে আমি ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।তিনি আরও বলেন যে, পরিকল্পিতভাবে ইসলামকে নিয়ে সমালোচনামূলক বইয়ের পাণ্ডুলিপিটি একটি আবর্জনার মধ্যে আমি ছুঁড়ে ফেলেছি এবং ইসলামের সমালোচকদের যুক্তিগুলি মোকাবেলা করার জন্যে একটি বই লিখতে শুরু করেছি ইতিমধ্যেই।
ক্লাভারেন
ক্লাভারেন গত বছর ২৬ অক্টোবর ইসলাম গ্রহন করেন। ক্লাভারানকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, কোন যুক্তির ভিত্তিতে তিনি ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করতেন? তিনি বলেন, এটি আমার PVV দলের মূখ্য এজেন্ডা ছিল। তাছাড়াও সারা বিশ্ব যেভাবে ইসলামকে দেখানোর চেষ্টা করছিল, সেটিই মূলত আমি আমার বক্তব্যের মধ্যে প্রতিস্থাপিত করার চেষ্টা করতাম। আসলে ইসলাম সম্পর্কে অন্য ধর্মাবলম্বী মানুষরা যা ভাবে তা সম্পূর্ণ ভুল। তাঁর স্ত্রী সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, আমার স্ত্রী আমার ধর্ম পরিবর্তন মেনে নিয়েছে। যদিও আমার স্ত্রী ও দুই সন্তানকে কখনও চাপ প্রয়োগ করবো না ইসলাম গ্রহন করার জন্যে। কারণ তাদের চিন্তাভাবনা তাদের কাছে।
আরও পড়ুন: বাচ্চাটির মর্মান্তিক কাহিনী আপনার চোখে জল এনে দেবে

Check Also

মুনিরা আব্দুল্লাহ

২৭ বছর কোমায় থাকার পর যেভাবে জ্ঞান ফিরে পেলেন মা

সবার খবর, ওয়েব ডেস্ক: গাড়ি দুর্ঘটনায় পর এক মহিলা কোমায় চলে যান। এক বছর বা …