Breaking News
Home / শরীর স্বাস্থ্য / গর্ভবতী হওয়ার সহজ উপায় : এই পদ্ধতিগুলি গর্ভবতী হওয়ার জন্যে সঠিক ও সর্বোত্তম

গর্ভবতী হওয়ার সহজ উপায় : এই পদ্ধতিগুলি গর্ভবতী হওয়ার জন্যে সঠিক ও সর্বোত্তম

সবার খবর, হেল্থ ডেস্ক: গর্ভবতী হওয়ার সহজ উপায় কি? প্রশ্নটি করলে হয়তো আপনি হাসাহাসি করবেন। প্রতিটি নবদম্পত্তির ইচ্ছে থাকে বিয়ের পর সুন্দর ফুটফুটে একটি সন্তানের জন্ম দেওয়ার। কিছু কিছু সময় নানান কারণে মহিলারা সহজে গর্ববতী হতে পারে না। মহিলাদের বিভিন্ন ধরনের প্রতিদিনের অভ্যাস গর্ভধারনের প্রতিকূল পরিস্থিতির সৃষ্টি করে। যখন শত চেষ্টার পরেও পরিবারে সন্তান জন্ম দিতে সক্ষম হন না মহিলারা তখন তারা অবসাদে ভুগতে শুরু করে।
যদি আপনি গর্ভধারন করার চেষ্টা করার পরেও গর্ভবতী না হতে পারেন তবে আপনাকে কিছু জিনিসের ওপর লক্ষ্য রাখতে হবে। আজকে আমরা আলোচনা করব গর্ভবতী হওয়ার সহজ উপায় । চলুন জেনে ফেলি গর্ভধারণের সঠিক ও সর্বোত্তম ১২টি উপায়।

গর্ভবতী হওয়ার সহজ উপায়

গর্ভধারনের সঠিক বয়স
১. ডাক্তাররা বলেন গর্ভধারনের জন্যে মহিলাদের সঠিক বয়স ১৮ থেকে ২৮ বছর। এই বয়সে মহিলারা বিয়ে করলে খুব তাড়াতাড়ি গর্ভবতী হওয়ার সম্ভবনা বেড়ে যায়। কারণ ১৮ থেকে ২৮ বছরের মহিলাদের ফার্টিলাইজেশন বেশি হয়। ২৫ বছরের মহিলাদের তুলনায় ৩৫ বছরের মহিলাদের ভেতর গর্ভধারনের ক্ষমতা কম। তাই প্রথমে দেখে নেবেন বয়স কত? যদি বয়স বেশি হয় তবে গর্ভধারনের সময় ডাক্তারের পরামর্শ নিতে ভুলবেন না।
মহিলাদের ফার্টিলিটির পরিমাণ
২. গর্ভবতী হতে চাইলে অবশ্য সেই মায়ের মধ্যে ফার্টিলিটি হওয়া খুব আবশ্যক। মাসিক ও ফার্টিলাইজেশন মহিলাদের সঠিক সময় হয়ে থাকে। তাই ডাক্তারের সঙ্গে কথা বলে ফার্টিলিটি পরিক্ষা করান। যদি মাত্রা কম থাকে তবে প্রথমে চিকিৎসা করান।
প্রথম গর্ভধারনের গুরুত্ব
৩. ভুল করেও প্রথম বাচ্চা নষ্ট করবেন না। সাধারণত এমন ভুল নবদম্পত্তিরা করে ফেলে যার মূল্য চোকাতে হয় পরবর্তীতে। প্রথম প্রেগনেন্সি আপনার ফার্টিলাইজেশনকে পরিপূর্ণতা দান করে। প্রথম গর্ভধারনেই আপনি যদি বাচ্চা নষ্ট করে দেন তবে পরবর্তীতে অনেক কষ্ট পেতে হতে হরে বাচ্চা নিতে গিয়ে। এমন কি সারা জীবনের জন্য গর্ভবধারনের ক্ষমতাও আপনি হারাতে পারেন।
গর্ভবতী হওয়ার সহজ ও সর্বোত্তম উপায়
গর্ভধারনে মাসিকের গুরুত্ব
৪. সঠিক সময়ে গর্ভবতী হতে চাইলে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে নির্দিষ্ট সময়ে মাসিক হচ্ছে কি না। ঋতুচক্রটি কি আপনার অনিয়মিত হয়? ১৫-২০ দিনের মাথাতেই কি মাসিক চলে আসে? যদি মাসিক নিয়মিত না হয় তবে খুব শিগ্রই ডাক্তার দেখান। কারন সঠিক সময়ে গর্ভবতী হতে চাইলে অবশ্যই মাসিক সঠিক সময়ে হওয়া খুব জরুরি।
গর্ভধারনে Ovulation বা ডিম্বস্ফোটনের সঠিক সময়
৫. পিরিওড হওয়ার দুই সপ্তাহ আগের সময়টি Ovulation বা ডিম্বস্ফোটনের সঠিক সময়। এই সময় গর্ভধারনের চেষ্টা করা উচিত। ডাক্তাররা বলেন, Ovulation বা ডিম্বস্ফোটনের সময় যৌন মিলন করলে গর্ভধারনের সম্ভবনা ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ বেড়ে যায়। এটি গর্ভবতী হওয়ার সহজ উপায়।
গর্ভবধারনে দেহের ওজন
৬. এমনিতেই দেহের ওজন বেড়ে গেলে নানান সমস্যার সৃষ্টি হয় দেহে। মোটা হওয়ার কারনে অনেক মহিলা মাতৃত্বের স্বাদ থেকে বঞ্চিত হন। অতিরিক্ত ওজনের ফলে ফেলোপিয়ান টিউব এবং ওভারি বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়। ওজনের কারণে অনেক মহিলার জরায়ুতে সিস্ট পর্যন্ত হয়ে যায়। তাই শুধু গর্ভধারন নয় নিজেকে সুস্থ রাখতে দেহের ওজন কমান।
গর্ভধারনে পুষ্টিকর খাবার
৭. সঠিক বয়সে প্রেগনেন্ট হতে চাইলে অবশ্যই মহিলাদের পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। ফার্টিলাইজেশনের সরাসরি সম্পর্ক আছে সঠিক খাবারের সঙ্গে। মহিলাদের দেহে আয়রন ও ক্যালিশিয়ামের অভাবে গর্ভধারনের ক্ষমতা অনেক ক্ষেত্রে কমে যায়। মহিলারা যদি চাপমুক্ত ও সঠিক ডায়েট চার্ট মেনে খাবার খায় তবে গর্ভধারনের ক্ষমতা ৩০ শতাংশ বেড়ে যায় বলে মত বিশেষজ্ঞদের। তাই এটি একটি গর্ভবতী হওয়ার সহজ উপায়।
গর্ভধারণের পূর্ব প্রস্তুতি কনশেপসানমুন
৮. স্বামী-স্ত্রী হানিমুনে যায়। সেটি একটি সঠিক সময় হতে পারে গর্ভধারনের। তাছাড়াও পশ্চিমা বিশ্বে অনেকেই গর্ভধারণের পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে বিদেশ ভ্রমণ করে থাকে। যাকে তারা কনশেপসানমুন বলে। এই সময় স্বামী-স্ত্রী আনন্দঘন মুহুর্তে গর্ভধারনের চেষ্টা করে থাকেন।
গর্ভবতী হতে চাইলে যেকোনো নেশা থেকে দূরে থাকুন
৯. এযুগের নারীরা অনেকেই সিগারেট বা মদ পান করে থাকেন। কিন্তু এই অভ্যাস গর্ভধারনে বাধার সৃষ্টি করে। সিগারেট ও মদ পান মহিলাদের প্রজনন ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। এর প্রভাব সরাসরি Ovulation বা ডিম্বস্ফোটনে এসে পড়ে।
গর্ভনিরোধক বর্জন করুন
১০. যখন নারীরা গর্ভবতী হতে চাইবে তার একবছর পূর্বেই সকল প্রকার গর্ভনিরোধক ব্যবহার করা বন্ধ করতে হবে। বিশেষ করে পীল খাওয়া চলবে না। গর্ভনিরোধক পীল Ovulation বা ডিম্বস্ফোটন প্রক্রিয়ার ওপর খারাপ প্রভাব বিস্তার করে। পীল খাওয়া ছাড়ার পর সপ্তাহে অন্তত ৩-৪ বার যৌন মিলনে লিপ্ত হোন। এটি একটি গর্ভধারনের সহজ উপায়।
গর্ভধারনের সময় বাদ দিতে হবে লুব্রিক্যান্ট
১১. লুব্রিক্যান্টের ব্যবহার যৌন মিলনের সময় একদম নয়। লুব্রিক্যান্ট বা পিচ্ছিল পদার্থ ব্যবহার করলে স্পার্মকে ওভারি পর্যন্ত অনেক সময় যেতে দেয়না। ফলে গর্ভধারনের সম্ভবনা অনেকটাই কমে যায়। এমনিতেই যৌন মিলনের সময় মহিলাদের দেহে অনেক পরিমাণে লিকুইড তৈরি হয় যা স্পার্মকে ওভারি পর্যন্ত নিয়ে যেতে সাহায্য করে। ফলে সহজে গর্ভধারণ করতে চাইলে লুব্রিক্যান্টের ব্যবহার বন্ধ করতে হবে।
চাপমুক্ত পরিবেশ গর্ভধারনের সহজ উপায়
১২. বর্তমান পৃথিবীতে স্ট্রেস একটি নিত্তনৈমিত্তিক ঘটনা। আর এই স্ট্রেসের কারণে অনেকই গর্ভবতী হতে পারেন না। তাই গর্ভধারণ করতে চাইলে নিজেকে রিল্যাক্স রাখুন এবং চাপমুক্ত পরিবেশ থেকে দূরে থাকুন। স্বামীর সঙ্গে কোয়ালিটি টাইম স্পেন্ড করুন ও নিয়মিত শরীর চর্চা করুন।

উপরের দেওয়া গর্ভবতী হওয়ার সহজ উপায় ডাক্তার দ্বারা প্রস্তাবিত। তার পরেও যদি কেউ সহজে গর্ভবতী না হতে পারেন তবে ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন।
Read More: মহিলাদের জন্য খুশির খবর এবার পুরুষদের জন্য গর্ভনিরোধক পিল

Check Also

ফর্সা মুখ

ফর্সা হওয়ার সহজ উপায় | পদ্ধতিগুলি মেনে চললে সাত দিনেই হাতে নাতে ফল

সবার খবর, হেল্থ ডেস্ক: অতীতকাল থেকেই মানুষ ফর্সা হওয়ার সহজ উপায় খুঁজে এসেছে। আর নিজেকে …