Breaking News
Home / শরীর স্বাস্থ্য / আপনার প্রতিদিনের খাবার রুটিন অপনাকে দিতে পারে সুন্দর ভবিষ্যৎ

আপনার প্রতিদিনের খাবার রুটিন অপনাকে দিতে পারে সুন্দর ভবিষ্যৎ

সবার খবর, হেল্থ ডেস্ক: প্রতিদিনের খাবার রুটিন । খাবার সচেতনতা যে কোনও মানুষকে সুস্থ দেহ প্রদান করতে পারে। আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন, যাঁরা খাবারের ব্যাপারে কোনও বাছবিচার করেন না। যা পাই, যেখানে পাই সামনে পিছনে কিছু না ভেবে গোগ্রাসে খেয়ে নিই। ভাবটা এমন, ‘পরে যা হবে দেখা যাবে।’ এমন খাদ্য-রসিক মানুষ আমরা প্রায়-ই দেখে থাকি।কি্ন্তু এভাবে অনিয়ন্ত্রিত ও অনিয়মিত খাবার খাওয়া কি ঠিক? কি বলছেন চিকিৎসকরা? কিংবা কি বা আছে খাদ্যাভাসের নিয়ম? যা থেকে আমরা সুস্থ ও সতেজ সুন্দর জীবনধারণ করতে পারি!
খাবার রুটিন
ডায়েটিশিয়ানদের বক্তব্য, খাবার আমরা অবশ্যই খাবো, যেটা রুচী সম্মত ও শরীর যা সহজেই ধারণ করতে পারে। সুস্থ শরীরের জন্য তিনটি নিয়ম মানা উচিত, যা রেগুলারলি মেইনটেইন করলে আমরা কিছু পরিচিত রোগ থেকে দূরে থাকতে পারবো- এই কথা খুব জোর দিয়ে বলা যেতে পারে।

প্রথমত, স্বাস্থ্য সম্মত খাবার আমাদের জীবনকে পূর্ণতা দেবে। খেয়াল রাখুন আপনি যে খাবারগুলি প্রতিদিন খাচ্ছেন তা-কি আপনার শরীরের জন্যে আদৌ উপকারী? অনেকেই পথে ঘাটে, রেস্টুরেন্টে হুটহাট করে খাবার খেয়ে থাকেন। অনেকের মনে ধারনা আছে, হোটেল বা রেস্টুরেন্টের খাবার সুস্বাদু হওয়াতে মনে করেন খাবারগুলি শরীর বা স্বাস্থ্য সম্মত। কিন্তু সব সময় তা নয় একেবারেই। এইসব জায়গাগুলিতে অত্যধিক স্পাইসি বা তৈলাক্ত খাবার আপনার শরীরী কাঠামোকে ভেঙ্গে দিতে পারে। দীর্ঘদিন এমন খাবার খেলে আপনি ক্রনিক পেটের সমস্যায় ভুগতে পারেন। অত্যধিক স্পাইসি রেগুলার খেলে গ্যাস্ট্রিক বা গ্যাস্ট্রিক আলসারের রোগি হয়ে উঠতে পারেন অচিরেই, এর বেশি কিছু সুফল পাবেন না। বরং আলস্য ঝেড়ে ফেলে বাড়ির তৈরি খাবার খান। খাবারে তেল, মশলা, ঝাল নিয়ন্ত্রনে রাখুন। তবে এই নয়, কখনও একদমই বাইরের খাবার খাওয়া যাবে না। নিজের শরীর ও মন বুঝে বাইরের খাবার খান।
খাবার মেনু
দ্বিতীয়ত, আপনার খাদ্য-তালিকাকে সমৃদ্ধ করতে পুষ্টিগুণ সম্পন্ন খাবার আপনার প্লেটে থাকছে কি না খেয়াল রাখবেন। কারণ পুষ্টি আপনার দেহ ও মনকে সুস্থ রাখবে। রেড মিট এড়িয়ে চলাই ভালো। কোলেস্টরল, মধুমেহ বা ব্লাড সুগার, উচ্চ রক্তচাপ হৃদরোগ প্রভৃতি রোগে যারা ভুগছেন তারা ডায়েটিশিয়ান ও চিকিৎসকের পরামর্শ মতো খাদ্য তালিকা বানিয়ে নিন। এবং তা ফলো করুন। জল খান পর্যাপ্ত। পর্যাপ্ত জল আপনার শরীরকে এনার্জেটিক করে তুলবে। মানব শরীরকে সুস্থ রাখতে জলের কোনও বিকল্প নেই।
ভালো খাবার
তৃতীয়ত, আপনি কি ধূমপায়ী? নিয়মিত অ্যালকহল নেন? তাহলে সাবধান। আপনার এখনই সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। অ্যালকহল ও নিকোটিন, হার্ট, ফুসফুসে ও লিভারে চরম আঘাত হানতে পারে।
চিকিৎসকদের মত, সুস্থ শরীর আপনাকে দিতে পারে একটি সুন্দর মন। আর সুন্দর মন আপনাকে প্রতিনিয়ত উপহার দেবে সুন্দর মুহুর্ত ও আনন্দপূর্ণ তরতাজা ভবিষৎ। একজন মানুষের নিজের কাছটি থেকে এর থেকে ভালো কিছু পাওয়া আর কি কিছু থাকতে পারে!
আরও পড়ুন: মাথা ব্যথা কমানোর ঘরোয়া উপায়

Check Also

সুখি দাম্পত্য

কিভাবে আপনার যৌন জীবনে শিল্পের ছোঁয়া লাগাবেন

সবার খবর, ওয়েব ডেস্ক: দাম্পত্য একটি আর্ট। একে সুন্দর করে গড়ে তোলায় দাম্পত্যের প্রধান শর্ত। …